Breaking News

২০২২ সালের ৭ম শ্রেণির ২য় সপ্তাহ বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর | class 7 bangladesh o bisso porichoy assignment 2nd week 2022

Discuss Today

২০২২ সালের ৭ম শ্রেণির ২য় সপ্তাহ বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর | class 7 bangladesh o bisso porichoy assignment 2nd week 2022: প্রিয় শিক্ষার্থী বন্ধুরা, ২০২২ সালের ৭ম শ্রেণি পরীক্ষার্থীদের জন্য ২য় সপ্তাহ বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় এসাইনমেন্ট প্রশ্ন প্রকাশিত হয়েছে।

আজকের এই পোস্ট থেকে ২০২২ সালের ৭ম শ্রেণি পরীক্ষার্থীরা ২য় সপ্তাহের বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় এসাইনমেন্ট এবং এর উত্তর সর্ম্পকে ধারণা লাভ করতে পারবে।

চলমান Covid-19 মহামারীর কারণে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক পুনর্বিন্যাস কৃত পাঠ্যসূচির ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের শিখন কার্যক্রমে পুরোপুরি সম্পৃক্তকরণ ও ধারাবাহিক মূল্যায়ন এর আওতায় আনার জন্য ২য় সপ্তাহের ইংরেজি অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ করা হয়েছে।

২০২২ সালের ৭ম শ্রেণির ২য় সপ্তাহ বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর | class 7 bangladesh o bisso porichoy assignment 2nd week 2022

১৩ ফ্রেরুয়ারি ২০২২ থেকে ২য় সপ্তাহের বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট কার্যক্রম শুরু হবে। ২০২২ সালের ৭ম শ্রেণির পরীক্ষার্থীদের জন্য ২য় সপ্তাহের বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ করা হয়েছে যা শিক্ষার্থীরা বাসায় বসে উত্তর প্রদান করে নিজ দায়িত্বে যত দ্রুত সময়ের মধ্যে নিজ শিক্ষকের নিকট হস্তান্তর করবেন।

৭ম শ্রেণি ২০২২ বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর সম্পর্কিত নির্দেশনা আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছি। শিক্ষার্থীরা ইংরেজি বিষয়ে পারদর্শী হয়ে ওঠার জন্য এই মহামারীর সময় শিক্ষা মন্ত্রণালয় এসাইনমেন্ট এর ব্যবস্থা করেছেন।

সপ্তম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় ২য় সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান ২০২২

আমাদের ওয়েবসাইটে অ্যাসাইনমেন্ট এর নমুনা উত্তর প্রকাশিত হয়েছে। এই উত্তর দেখে শিক্ষার্থীরা এসাইনমেন্ট এর সমাধান কিভাবে করতে হবে সে সম্পর্কে ধারনা পাবেন। ৭ম শ্রেণির ২০২২ বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় এসাইনমেন্ট উত্তর আমাদের ওয়েবসাইট থেকে নমুনা হিসেবে ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

৭ম শ্রেণির ২০২২ এর শিক্ষার্থীদের জন্য বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় প্রকাশিত হয়েছে। ৭ম শ্রেনি ২য় সপ্তাহের  বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট নিয়ে আপনি চিন্তিন্ত থাকলে আমাদের দেওয়া নমুনা উত্তরসমূহ আপনারদের ধারনা প্রদান করবে। যা থেকে আপনারা সুন্দরভাবে উত্তর লিখতে পারবে।

২০২২ সালের ৭ম শ্রেণির ২য় সপ্তাহ বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর | class 7 bangladesh o bisso porichoy assignment 2nd week 2022

২০২২ সালের ৭ম শ্রেনি ২য় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট
নং প্রকাশিত বিষয় পত্র সপ্তাহ
 ১.  ইংরেজি  ১ম পত্র  ২য় সপ্তাহ
 ২.  বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয়    —–   ২য় সপ্তাহ

২০২২ সালের ৭ম শ্রেণির ২য় সপ্তাহ বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর | class 7 bangladesh o bisso porichoy assignment 2nd week 2022

অ্যাসাইনমেন্ট ১ 

২০২২ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের জন্য অ্যাসাইনমেন্ট বা নির্ধারিত কাজ ও মূল্যায়ন নির্দেশনা

বিষয়: বাংলাদেশে ও বিশ্বপরিচয়

শ্রেণি : ৭ম

অ্যাসাইনমেন্ট ( শিরোনামসহ )

অ্যাসাইনমেন্ট নম্বর: ১ (প্রথম অধ্যায়: বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম)

অ্যাসাইনমেন্ট (শিরোনামসহ): রাজনৈতিক ঘটনাপ্রবাহ (১৯৫২-১৯৭০) ভাষা আন্দোলন হতে ১৯৭০ এর নির্বাচন পর্যন্ত ঘটনা প্রবাহের গুরুত্ব বিশ্লেষণ

শিখনফল/ বিষয়বস্তু:

১. রাষ্ট্রভাষা আব্দোলনের ঘটনার বর্ণনা দিতে পারবে।

 ২. যুক্তফ্রন্ট্রের মাধ্যমে বাঙালির অর্জনসমূহ বর্ণনা করতে পারবে।

 ৩. ছয়দফা আন্দোলন সম্পর্কে বর্ণনা করতে পারবে।

৪. উনসত্তরের গণঅভ্যুত্থানের ঘটনা ও গুরুত্ব বর্ণনা করতে পারবে।

৫. ১৯৭০ সালের নির্বাচনে বাঙালির নিরঙ্কুশ বিজয় সম্পর্কে বর্ণনা করতে পারবে।

২০২২ সালের ৭ম শ্রেণির ২য় সপ্তাহ বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর | class 7 bangladesh o bisso porichoy assignment 2nd week 2022

বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট প্রণয়নের নির্দেশনা : 

ক) ছক তৈরিপূর্বক ১৯৫২-১৯৭০ সাল পর্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ঘটনাক্রম করে রাজনৈতিক সময় উল্লেখ ধারাবাহিকভাবে লিখবে।

খ) ছক থেকে যেকোনো একটি ঘটনা নির্বাচন করে তার ধারাবাহিক বর্ণনা।

গ) আমাদের জাতীয় জীবনে উক্ত ঘটনাটির গুরুত্ব ব্যাখ্যা করতে হবে। ব্যাখ্যার ক্ষেত্রে নিম্নোক্ত দিকগুলো থাকতে হবে

*বাঙালি জাতীয়তাবাদের বিকাশ

* অর্থনৈতিক বৈষম্য নিরসন

*স্বাধীকার আন্দোলন

*রাজনৈতিক বিজয়।

২০২২ সালের ৭ম শ্রেণির ২য় সপ্তাহ বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর | class 7 bangladesh o bisso porichoy assignment 2nd week 2022

৭ম শ্রেণির ২য় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান

৭ম শ্রেণির ২য় সপ্তাহ বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর এখান শুরু

ক) ছক তৈরিপূর্বক ১৯৫২-১৯৭০ সাল পর্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ঘটনাক্রম করে রাজনৈতিক সময় উল্লেখ ধারাবাহিকভাবে লিখবে।

(ক) নং প্রশ্নের উত্তর:

নিচে ১৯৫২ থেকে ১৯৭০ সাল পর্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক ঘটনাক্র ছক তৈরি করে সময় উল্লেখ করা হলো:

সাল রাজনৈতিক ঘটনা
১৯৫২ ভাষা আন্দোলন
১৯৫৪ যুক্তফ্রন্ট গঠন
১৯৬৬ ছয় দফা আন্দোলন
১৯৬৯ উনসত্তরের গণঅভ্যুত্থান
১৯৭০ ৭০ ‘এর সাধারণ নির্বাচন
ছক: ১৯৫২ থেকে ১৯৭০ সাল পর্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক ঘটনাচক্র

খ) ছক থেকে যেকোনো একটি ঘটনা নির্বাচন করে তার ধারাবাহিক বর্ণনা।

(খ) নং প্রশ্নের উত্তর:

ছক থেকে নির্বাচিত ঘটনাটি হলো ৫২’র ভাষা আন্দোলন । নিচে ৫২’র ভাষা আন্দোলন এর ধারাবাহিক বর্ণনা করা হলো:

১৯৪৭ সালে ভারত শাসন আইন অনুযায়ী ভারত ও পাকিস্তান নামক দুটি স্বাধীন রাষ্ট্রের সৃষ্টি হয় । পাকিস্তানের দায়িত্বভার গ্রহণ করে মুহাম্মদ আলী জিন্নাহ আর ভারতের দায়িত্বভার অর্পিত হয় জ রলাল নেহেরুর উপর । পাকিস্তান সৃষ্টির শুরুতেই ভাষাগত বিষয় নিয়ে সমস্যা দেখা দেয় এর ফলে শুরু হয় ভাষা আন্দোলন। ১৯৫২ সালের জানুয়ারি মাসের শেষের দিকে ভাষা আন্দোলন পুনরজ্জীবিত হয় ।

পাকিস্তানের তদানীন্তন প্রধানমন্ত্রী খাজা নাজিমউদ্দিন ২৭ জানুয়ারি ( ১৯৫২ ) এক জনসভায় ঘোষণা দেন যে, উর্দুই হবে পাকিস্তানের একমাত্র রাষ্ট্রভাষা । তার এই ঘোষণায় ছাত্র – শিক্ষক – বুদ্ধিজীবী মহলে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয় । রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম পরিষদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩০ জানুয়ারি ( ১৯৫২ ) ছাত্র ধর্মঘট ও সভা আহবান করে ।

৩০ জানুয়ারির সভায় ৪ ফেব্রুয়ারি ( ১৯৫২ ) ঢাকা শহরে ছাত্রধর্মঘট, বিক্ষোভ মিছিল ও ছাত্রসভা অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় । বিক্ষোভ ঠেকাতে সমস্ত ঢাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয় । সরকারি ঘাষেণায় ছাত্ররা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠে এবং তাঁরা ১৪৪ ধারা ভাঙার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন ।

১৪৪ ধারা ভাঙার পন্থা হিসেবে দশজন দশজন করে ছাত্র রাস্তায় মিছিল বের করবে বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয় । অনেকেই এদিন গ্রেফতার হন । পুলিশ মিছিলকারীদের উপর বেপরায়ো অনেকেই এদিন গ্রেফতার হন ।

পুলিশ মিছিলকারীদের উপর বেপরায়ো লাঠিচার্জ করে এবং কাঁদুনে গ্যাস নিক্ষেপ করে । কিন্তু সব বাধা উপেক্ষা করে ছাত্ররা মেডিকেল হোস্টেলের প্রধান ফটকের কাছে জমায়েত হন । তখন ছাত্ররা দলবদ্ধ হয়ে শ্লোগান দিতে থাকলে পুলিশ বাহিনী এসে তাদের তাড়া করে এবং ছাত্রদের উপর কাঁদুনে গ্যাস নিক্ষেপ করে । প্রতিবাদে ছাত্ররা ইট পাটকেল ছুড়তে থাকে ।

একদিকে ইট পাটকেল, আর অন্য দিক থেকে তার পরিবর্তে কাঁদুনে গ্যাস আর লাঠি চার্জ চলতে থাকে । এক পর্যায়ে রফিক, বরকত পুলিশ ছাত্রদের লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে । ঘটনাস্থলেই সালাম, জব্বার ও রফিক, বরকত শহীদ হন । এই হত্যাকাণ্ড মাতৃভাষার অধিকারের দাবিতে গড়ে ওঠা আন্দোলনকে দমিয়ে দেয়নি । এই ঘটনার দুই বছরের বেশি সময় পরে, ১৯৫৪ সালের ৭ মে পাকিস্তান সংসদ “বাংলাকে” একটি রাষ্ট্রভাষা হিসাবে স্বীকার করে প্রস্তাব গ্রহণ করে ।

সংবিধান অনুযায়ী রাষ্ট্রভাষার স্বীকৃতি কার্যকর হতে লেগেছিল আরও দুই বছর । মাতৃভাষা নিয়ে এই আন্দোলনেই বীজ বপন হয়েছিল পৃথিবীর বুকে বাংলাদেশ নামে একটি স্বাধীন রাষ্ট্রের ।

৫২’তে বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে পেলেও স্বাধীনতার স্বাদ তখনও আমরা পাইনি । অবশেষে ১৯৭১ সালে আমরা পেলাম স্বাধীনতার স্বাদ । স্বাধীনতা পর্যন্ত সময়কালে মুক্তিযুদ্ধের আন্দোলনের পিছনে সাক্ষী হয়ে আছে অনেক কাল ।

আমাদের জাতীয় জীবনে উক্ত ঘটনাটির গুরুত্ব ব্যাখ্যা করতে হবে। ব্যাখ্যার ক্ষেত্রে নিম্নোক্ত দিকগুলো থাকতে হবে।

(গ ) নং প্রশ্নের উত্তর:

আমাদের জাতীয় জীবনে ৫২’র ভাষা আন্দোলন খুবই গুরুত্বপূর্ন। নিচে প্রশ্নে উল্লেখিত দিকগুলো থেকে ঘটনাটি ব্যাখ্যা করা হলো:

বাঙালির জাতিয়তাবাদের বিকাশ :

১৯৪৮ খ্রিষ্টাব্দের ২১ শে মার্চ মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ উর্দুকে পাকিস্তানের রাষ্ট্রভাষা করার ঘোষণা দেন এতে পূর্ব পাকিস্তানে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয় । ফলে ১১ ই মার্চ ১৯৪৮ খ্রিষ্টাব্দে ঢাকায় ধর্মঘট পালিত হয় । ধর্মঘট পালনকালে শেখ মুজিবসহ আরও কয়েকজন রাজনৈতিক কর্মীকে সচিবালয়ের সামনে থেকে গ্রেফতার করা হয়। আন্দোলন আরও জোরদার হতে থাকে । আন্দোলন দমনে পুলিশ ১৪৪ ধারা জারি করে । ২০ শে ফেব্রুয়ারি রাতে সভা করে ছাত্ররা ১৪৪ ধারা ভেঙে মিছিল বের করার সিদ্ধান্ত নেয় ।

২২ শে ফেব্রুয়ারি পুলিশ ছাত্র জনতার মিছিলে গুলি বর্ষণ করে । সালাম – রফিক – বরকতসহ অনেকেই নিহত হন । ভাষার জন্য তাদের প্রান বৃথা যায় নি । অবশেষে ১৯৫৪ সালের ৭ মে মুসলিম লীগের সমর্থনে বাংলাকে রাষ্ট্রীয় ভাষার মর্যাদা দেয়া হয় । ফলে বাঙালি জাতিয়তাবাদের স্বাদ পায় । জীবনে উক্ত ঘটনার গুরুত্ব ব্যাখ্যা করা হলো –

শোষণ থেকে মুক্তি :

এ দেশের মানুষের অধিকার আদায় এবং শোষণ বঞ্চনার প্রতিবাদ করতে গিয়ে শেখ মুজিবুর রহমান বহুবার গ্রেফতার ও কারারুদ্ধ হন । ১৯৬৬ সালে তিনি পেশ করেন বাঙালি জাতির ঐতিহাসিক মুক্তির সনদ ছয় দফা । এ সময় নিরাপত্তা আইনে তিনি বারবার গ্রেফতার হতে থাকেন ।

আজ গ্রেফতার হয়ে আগামীকাল জামিনে মুক্ত হলে সন্ধ্যায় তিনি আবার গ্রেফতার হন । এরকমই চলে পর্যায়ক্রমিক গ্রেফতার । তিনি কারারুদ্ধ জীবনযাপন করতে থাকেন । তাঁকে প্রধান আসামি করে দায়ের করা হয় আগরতলা মামলা ।

স্বাধিকার আন্দোলন :

আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা চলাকালীন সময়ে কেন্দ্রীয় ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ ১৯৬৯ সালের জানুয়ারি ৫ তারিখে দফা দাবি পেশ করে যার মধ্যে শেখ মুজিবের ছয় দফার সবগুলোই দফাই অন্তর্ভুক্ত ছিল । আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে দেশব্যাপী ছাত্র আন্দোলনের প্রস্তুতি শুরু হয় । যা পরবর্তীতে গণ আন্দোলনের রূপ নেয় । এই গণ আন্দোলনই ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থান নামে পরিচিত ।

মাসব্যাপী চলতে থাকে আন্দোলন, কারফিউ, ১৪৪ ধারা ভঙ্গ, পুলিশের গুলিবর্ষণ । পরবর্তীতে এই আন্দোল চরম রূপ ধারণ করলে তৎকালীন রাষ্ট্রপতি আইয়ুব খান তাদের রাজনৈতিক নেতাদের দিয়ে গোলটেবিলে বৈঠকে আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা প্রত্যাহার ও বঙ্গবন্ধুকে মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় ।

রাজনৈতিক বিজয় :

বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইতিহাসে ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি মাইলফলক । সামরিক শাসন এবং পাকিস্তানী সামরিক গণতন্ত্র বিরোধী অপশাসনের বিরুদ্ধে দীর্ঘ আন্দোলনের পর আসে এই নির্বাচন ।

নির্বাচনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ প্রাদেশিক আইনসভায় নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে । জাতীয় পরিষদের ১৬৯ টি আসনের মধ্যে ১৬৭ টিতে এবং প্রাদেশিক পরিষদের ৩০০ টি আসনের মধ্যে ২৮৮ টি আসনে জয় লাভ করে আওয়ামী লীগ । আর এভাবেই ধীরে ধীরে সংঘটিত হয় রাজনৈতিক বিজয় ।

৭ম শ্রেণির ২য় সপ্তাহ বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর এখান শেষ

Check Also

ষষ্ঠ (৬ষ্ঠ) শ্রেণির বিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ৩য় সপ্তাহ ২০২২

ষষ্ঠ (৬ষ্ঠ) শ্রেণির বিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ৩য় সপ্তাহ ২০২২  আপনি কি ষষ্ঠ (৬ষ্ঠ) শ্রেণির বিজ্ঞান …

Leave a Reply

Your email address will not be published.